Home 20 মতামত 20 পানিবন্যা বনাম ধর্ষণবন্যা

পানিবন্যা বনাম ধর্ষণবন্যা

দেশের বেশির ভাগ জায়গা পানির তলে। রাজধানী ঢাকা পানিতে ভাসছে। বাঁধ ভেঙে ফসল ও বসতবাড়িতে বন্যা হানা দিয়েছে। অতিবৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে; পাহাড় ধসে কত মানুষের অকাল মৃত্যু হলো, জীবন দিতে হলো উদ্ধারকারী সেনাবাহিনী সদস্যদের।
রাজধানীর রাজপথে শিশুদের সাঁতার দেখার দৃশ্য অহরহ। ছোটকালে স্কুলে থাকতে পড়েছি ‘সুইমিং ইজ দ্য বেস্ট এক্সারসাইজ’। ঢাকায় পুকুরের বড় অভাব। এখন রাজপথে সাঁতার শিখে নেয়ার মোক্ষম সুযোগ। কোথাও হাঁটু পানি, কোথাও কোমর পানি, আবার কোথাও বা গলা পানি। গৃহকর্ত্রীরা হাঁটু পানিতে দাঁড়িয়ে রান্না করছেন, কেউ বা কলা গাছের ভেলায়। ছেলেমেয়েদের স্কুলে যেতে চরম দুর্ভোগ। খাল বন্ধ, ড্রেন বন্ধ, নদী দখল, ময়লা আবর্জনায় নদী বন্ধ।
ঢাকার উন্নয়ন নিয়ে কাজ করে ১১টি মন্ত্রণালয়। কেউ দায় নিতে চায় না। কেন জলাবদ্ধতা হয় এবং তার প্রতিকারে করণীয় কী, কর্তৃপক্ষের সে জ্ঞান আছে? কোটি কোটি টাকা খরচ হয় কিন্তু সমাধান হয় না। একজন মেয়র বন্যা সমস্যায় আলাদিনের চেরাগের কথা বলে দীর্ঘ সফরে দেশের বাইরে। আরেক মেয়র রুটিনমাফিক অফিস করছেন। একজন মাননীয় মন্ত্রী চোখ মিটমিট করে বলেছেন, আগামীবার আর ঢাকাবাসীকে জলাবদ্ধতায় পড়তে হবে না। তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ কী এক তথ্য আছে! মন্ত্রীর মুখে ফুল চন্দন পড়ুক।
দেশে ‘পানিবন্যার’ সাথে সাথে ধর্ষণবন্যা শুরু হয়েছে। শিশু, কিশোর, প্রৌঢ়; বন্যা বেগে ধর্ষণ। ট্রাকে ধর্ষণ, প্রেম প্রত্যাখ্যান করায় ধর্ষণ, ধনীর দুলালেরা জন্মদিনের দাওয়াত দিয়ে ধর্ষণ, ফেসবুকে বন্ধুত্বের সুবাদে ধর্ষণ, সাত মাস আটকে রেখে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ, বগুড়ায় তুফান বেগে তুফানের ধর্ষণ। ক্ষমতা, অর্থ, প্রতিপত্তি, গায়ের জোরে ধর্ষণের সাথে জড়িত তুফানদের পরিচয় দেশবাসী জেনে গেছে।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলে একই বিভাগের শিক্ষিকার সংবাদ সম্মেলন কিসের আলামত? রাবির একজন সাবেক ছাত্র হিসেবে এসব খবর শুনতেও লজ্জা লাগে।
মেধাহীন ও অসৎ প্রকৃতির অযোগ্য দলীয় লোকেরা যখন গুরুত্বপূর্ণ পেশায় আসে তখন এমনটিই হওয়া স্বাভাবিক। কয়েক দিন আগে অবৈধভাবে নিয়োগকৃত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের অযোগ্য শিক্ষক নিয়োগ আপিল বিভাগ বাতিল করে রায় দেয়ায় দেশবাসীর পক্ষ থেকে অভিনন্দন। অর্থমন্ত্রীর সাথে একটু যোগ করে বলতে চাই, সব সময় সব জায়গায় ক্ষমতাবানরা দুর্নীতি, অন্যায়, অপকর্ম ও ধর্ষণের সাথে জড়িত। সময় এসেছে এদের রুখে দেয়ার।
অধ্যক্ষ, কারিগরি কলেজ, পুঠিয়া, রাজশাহী

About Dhakar News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা প্রমাণিত হওয়ার পরও শাস্তি পায়নি কেউ

ভুল ব্যাখ্যা ও অসত্য তথ্য দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সাময়িক সনদ নিয়েছিলেন সাবেক উপসচিব শেখ আলাউদ্দিন। ...

যাদের হাতে জিম্মি গোটা দেশ

বাস্তবায়নের আগেই দীর্ঘ প্রচেষ্টার ফসল নতুন সড়ক পরিবহন আইনের শিথিলতা নিয়ে আবারও আলোচনায় পরিবহন খাত। ...

দ্যা স্কলারস ফোরাম বৃত্তি পরীক্ষা-২০১৯ এর ফল প্রকাশ

দ্যা স্কলারস ফোরাম বৃত্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ শিক্ষার নৈতিক উৎকর্ষ সাধন এবং শিক্ষার্থীদের সুপ্ত প্রতিভা ...

সড়কে আইন প্রয়োগ করতে গেলে পুলিশকে বদলির হুমকি দেয়- বললেন আইজিপি

সড়কে আইন প্রয়োগ করতে গেলে পুলিশকে অনেক কর্মকর্তা বস পরিচয় দেয় এবং বদলির হুমকি দেয় ...

মুসলিম ছাড়া বাকি সব ধর্মের লোক ভারতে থাকবে : অমিত শাহ

ভারতে নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) তৈরির ক্ষেত্রে কোনো বিশেষ ধর্মকে নিশানা করা হয়নি। বুধবার রাজ্যসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ...