Home 20 দেশের খবর 20 ভালোবেসে ঘর পালানো ছাত্রের লাশ মিলল গাছে

ভালোবেসে ঘর পালানো ছাত্রের লাশ মিলল গাছে

ভালোবেসে দুজন ঘর পালিয়েছিল। কিন্তু তাদের ঘর বাঁধা হল না। পালানোর কয়েক ঘণ্টার ব্যাবধানে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা দুজনকে ধরে ফেললো। উদ্ধার অভিযানের খরচ মেটানোর জন্য সালিশ বৈঠক বসানো হল। বৈঠকে ছেলের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করা হয়। বৈঠকে ধার্যকৃত পাঁচ হাজার টাকা দিয়ে রাতেই স্কুল ছাত্রী পরিবারের সঙ্গে ঘরে ফিরলো। টাকা পরিশোধ না করেই স্কুল ছাত্রীকে তার দাদী জোর করে নিয়ে আসলেন। কিন্তু রাতেই দুর্বৃত্তরা ছেলেকে ঘর থেকে তুলে আনলেন। ভোর রাতে সেই ছেলের লাশ মিলল গাছের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায়।

নিহত ওই ছেলের নাম মহব্বত শিকদার (১৫)। পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইজদা ইউনিয়ন মৌডুবি এলাকার উত্তর কাজীকান্দা গ্রামের বাদশা শিকদারের ছেলে। সে মৌডুবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র। শনিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে দুর্বৃত্তরা তাকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে যান। আজ রবিবার ভোর ৫টার দিকে ঘর থেকে শত গজ দূরে গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থার তার মৃত্যুদেহ স্থানীয়রা দেখতে পায়। দুপুরের দিকে রাঙ্গাবালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মহব্বতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মৌডুবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণি পড়ুয়া মহব্বতের সঙ্গে ৭ম শ্রেনীতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর (স্বপ্না আক্তার) সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিল। সেই সম্পর্কের সূত্র ধরেই ওই ছাত্রী শুক্রবার গভীর রাতে মহব্বতের সঙ্গে ঘর পালায়। ছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধারের জন্য আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের শরণাপন্ন হন। দলীয় কর্মীরা শনিবার রাত ৯টার দিকে তাদের পার্শ্ববর্তী তকতাবুনিয়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করে। দুজনকে নিয়ে সালিশ বৈঠক বসে দক্ষিণ কাজিকান্দা গ্রামের রাসেল হাওলাদার বাড়ির আঙিনায়। শনিবার রাত ১২টা পর্যন্ত শতাধিক লোকের উপস্থিতিতে সালিশ বৈঠক শেষ হয়।

সালিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের নেতৃস্থানীয় জোবায়ের হাওলাদার, জুয়েল হাওলাদার, সানাউল কারী, কাজীকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মাসুম হোসেন। বৈঠকে সালিশদাররা বলেন, উদ্ধারের জন্য দলীয় অনেক নেতা-কর্মী বাইক নিয়ে ঘুরেছেন। তারা নিজের পকেট থেকে টাকা খরচ করেছেন। তাদেরকে দুই পরিবারের পক্ষ থেকে খরচ দিতে হবে। সে অনুযায়ী ছেলের পরিবারকে ৫০ হাজার এবং মেয়ের পরিবার পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ধার্যকৃত টাকা দিয়ে মেয়ে রাতেই তার পরিবারের সঙ্গে ঘরে ফেরেন।

মহব্বতের দাদী আঞ্জুমানারা বেগম বলেন, সালিশ বৈঠকে তার নাতীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কারণ তার নাতী যে মেয়েকে নিয়ে পালিয়েছিল তাকে উদ্ধারের জন্য আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রায় ওই পরিমাণ টাকা খরচ হয়েছে। টাকা পরিশোধের অঙ্গীকার করে তিনি নাতীকে রাত ১২টা দিকে বৈঠক থেকে নিয়ে আসেন। রাত আনুমানিক ৩টার দিকে মেয়ের ভাই মিল্লাত লোকজন নিয়ে ঘরে প্রবেশ করে। এক পর্যায়ে তার মুখ চেপে নাতীকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনার পর তিনি চিৎকার দিলে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে জড়ো হন। অনেক খোঁজাখুজির পর নাতীর লাশ গাছের সঙ্গে ঝুঁলতে দেখেন। তার দাবী নাতীকে হত্যার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা করবেন।
মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে স্থানীয় সাংবাদিকরা তার গ্রামের বাড়ি ভুইয়াকান্দা যান। মেয়ের বড় বোন (সাবিকুন নাহার সম্পা) এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তার বোনকে ছেলে তাবিজ করেছে। সে জন্যই শুক্রবার রাতের কোনো এক মুহূর্তে সে ঘর পালিয়েছিল। আওয়ামী লীগের লোকজন পরের দিন দুজনকে উদ্ধার করে। রাসেল হাওলাদারের বাড়িতে সালিশ হয়েছে। মেয়েকে উদ্ধারের জন্য সালিশে তার পরিবারকে জরিমানা করা হয়েছিল। টাকা দিয়েই তার বোন ঘরে ফিরেছে। ওই ঘটনার পর ছেলেটি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে তিনি শুনেছেন। সালিশের পর তার ভাই আর ঘরে ফেরেননি।

কাজীকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মাসুম বিল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, ভালোবেসে কিশোর-কিশোরী ঘর ছেড়ে পালিয়েছিল। দুই পরিবারের সদস্যরা তাদের উদ্ধারের জন্য স্থানীয়দের সহযোগিতা চেয়েছিল। সে অনুযায়ী স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে পরিবারের জিম্মায় দিয়েছে। গাইয়া পাড়ার ব্যবসায়ী হাসান মোটরসাইকে ভাড়া বাবদ ৫ হাজার টাকা দাবি করেছিল। মেয়ের পরিবার সে টাকা সালিশ বৈঠক শেষে দিয়েছে। তবে ছেলের পরিবারকে কোনো জরিমানা করা হয়নি। সালিশের পরবর্তী ঘটনা সম্পর্কেও তিনি অবগত নন।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি সামছুল আরেফিন বলেন, এক স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশের শরীরের বিভিন্ন স্থানে অঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তকে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলেই নেপথ্যের ঘটনা জানা যাবে। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের জন্য প্রস্তুতি চলছে।

About Dhakar News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাঁশখালী কাণ্ডে শ্রমিক মৃত্যু, প্রতিবাদে শ্রমিক দলের মানববন্ধন

ঢাকার নিউজ ডেস্কঃবাঁশখালী গন্ডামারা কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিকদের উপর ‘নির্বিচারে গুলি’ করে ৭ (সাত) জন ...

বাঁশখালীতে শ্রমিকদের ওপর ‘গুলি বর্ষণকারী’ পুলিশের বিচার চায় শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন

ঢাকার নিউজ ডেস্কঃচট্টগ্রামের বাঁশখালীতে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে গত ১৭ এপ্রিলের পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষের ঘটনার পেছনে ...

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে চলছে কঠোর ‘লকডাউন’

এম উজ্জ্বল, নালিতাবাড়ীঃ দেশে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে কঠোর বিধিনিষেধ ‘সর্বাত্মক ...

সর্বাত্মক লকডাউনে বন্ধ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরি পারাপার

ঢাকার নিউজ ডেস্কঃ সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে সাধারণ যানবাহন পারাপার বন্ধ করে ...

‘নদী বাঁচাও নালিতাবাড়ী বাঁচাও’ দাবীতে মানব বন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

এম উজ্জ্বল, নালিতাবাড়ী (শেরপুর) প্রতিনিধি :‘নালিতাবাড়ীর সূধী সমাজ’ এর উদ্যোগে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদের সামনে ...